কাজল কেন অজয় দেবগনকে বিয়ে করেছিলেন? তার পিছনে রয়েছে অনেক গোপন রহস্য

0
366

সেলিব্রিটি দম্পতিরা সকলের খুবই প্রিয় হোন, বিশেষ করে যদি তারা সিনেমা জগতের বিখ্যাত নায়ক নায়িকা হন । যখনই মানুষ দেখেন দুজন নায়ক ও নায়িকাকে পর্দার মধ্যে রোমান্টিক ভূমিকা পালন করার পর সেই ভূমিকাকে পর্দার বাইরেও নিয়ে যাচ্ছেন তখন মানুষের আগ্রহ তাদের প্রতি বহুগুণ বেড়ে যায় । কাজল ও অজয় দেবগন হলেন বলিউডের সেলিব্রিটি দম্পতিদের মধ্যে অন্যতম । অফ স্ক্রিন ক্যামেরা ও নানাবিধ বিতর্ককে পাশ কাটিয়ে এই দুই তারকা ২৪ শে জানুয়ারি, ১৯৯৯ সালে মহারাষ্ট্রীয় পরম্পরায় বৈবাহিক বন্ধনে আবদ্ধ হন ।

এই দম্পতির বর্তমানে দুটি সন্তান আছে, নাম নিশা ও যুগ । কাজল হলেন উচ্ছল ও দুষ্টু মিষ্টি চরিত্রের এবং অপরদিকে অজয় হলেন শান্ত শিষ্ট ও আত্মমগ্ন এক চরিত্রের । দুই বিপরীত চরিত্র হওয়া স্বত্তেও দুজন দুজনের প্রতুল আকর্ষিত হয়েছিলেন এবং তার চেয়েও দৃষ্টান্তমূলক ঘটনা এই যে আজও পর্যন্ত তারা তাদের দীর্ঘ সংসারিক জীবন অত্যন্ত খুশির সাথে পালন করে চলেছেন যা খুবই ব্যতিক্রমী দৃষ্টান্ত বলে মনে করা হয় ।

আপনি কি জানেন কাজল কি কারনে অজয় দেবগণকে বিয়ে করেন ? জানতে হলে পড়তে হবে ….

বলিউডের সকলের প্রিয় মিষ্টি দম্পতি

কাজল অজয় দেবগণকে বিয়ে করার মনস্থির করেন তার ক্যারিয়ারের সফলতার মধ্যগগনে ।

“বছরে একটি মাত্র সিনেমা”

অজয় দেবগণকে বিয়ে করার আগে কাজল মনস্থির করেন যে তিনি বছরে একটি মাত্র সিনেমা করবেন ।

কাজল তার সিনেমার ক্যরিয়ার থেকে বিশ্রাম নিলেন ।

কাজল বলেন বিবাহের পূর্বে ৯ বছর তিনি তার সিনেমা জগতে বিরাজ করেছেন আর এই কারনেই বিবাহের পর ধীরে চলো নীতি গ্রহণ করেছেন ।

নিজের জন্য নিজের জীবনকে গড়ে তোলা

বিবাহের পূর্বে কাজল বছরে চার থেকে পাঁচটি সিনেমা করতেন কিন্তু এই ধারা তিনি বিবাহের পরে আর বজায় রাখতে চাননি ।

স্থায়ী ও নিশ্চিত জীবন

তিনি চেয়েছিলেন বিবাহের পর একটি সুখী ও স্থায়ী সাংসারিক জীবন ।

ভীষণ ভালো একটি সিদ্ধান্ত ..

কাজল তার জীবনের সঠিক সময়ে সঠিক সিদ্ধান্তটি নিয়েছেন । খুবই অন্তর্দৃষ্টিসম্পন্ন ও আন্তরিক জীবনসঙ্গী কাজলের সঙ্গে অজয় দেবগণ বিয়ে করতে রাজি হন এবং তাদের সম্পর্ককে আরো এগিয়ে নিয়ে যেতে চান ।

তাদের নিয়ে ইন্ডাস্ট্রিতে অনেক গুজব ওঠে কিন্তু সবই মিথ্যা বলে প্রমাণিত হয় ।

কাজল ও অজয় দেবগণ যখন বিবাহসূত্রে আবদ্ধ হন তখন সংবাদ মাধ্যম প্রচার করে যে এই বিয়ে বেশিদিন স্থায়ী হবে না ….

কিন্তু তা মিথ্যা প্রমাণিত হয়। এই দম্পতি একে অপরের উপর অগাধ আস্থাকে চাবিকাঠি করে ।

কাজলের ভাষায় “আমাদের বৈবাহিক জীবনের সাফল্যের মূল কারন হলো আমি ভীষণ কথা বলি অপরদিকে অজয় চুপচাপ শোনে ।”

সুখী দম্পতি

বিবাহের ১৮ বছর পরেও তারা সুখে শান্তিতে সংসার করছেন ।

নিশা ও যুগ

দুই মিষ্টি সন্তানকে নিয়ে কাজল ও অজয়ের সংসারিক জীবন আরো সুখের বার্তা বয়ে আনুক এই আমাদের কামনা । ভালো থেকো দেবগন পরিবার ।