আজকের ম্যাচে যাদের উপর ভরসা রাখছেন মাশরাফি

0
64

আজকের ম্যাচে যাদের- এক ম্যাচ হাতে রেখেই সুপার ফোর নিশ্চিত করেছে টাইগার বাহিনী। আজ আফগানদের সাথে মর্যদার লড়াই। দুবাই আন্তর্জাতিক ক্রিকেট স্টেডিয়ামে বাংলাদেশ সময় বিকেল সাড়ে ৫টায় শুরু হবে ম্যাচটি।

আজকের ম্যাচ বাংলাদেশ তিন পরিবর্তন নিয়ে মাঠে নামবে টাইগার বাহিনী। তামিম ইকবাল এরই মধ্যে ইনজুরির করণে দল থেকে ছিটকে পড়েছেন। তাই তার যায়গায় নাজমুল হোসেন শান্তের খেলার সম্ভাবনা রয়েছে।

পাঁজরের ব্যথার কারণে মুশফিক আজ বিশ্রামে থাকছেন। অন্যদিকে কাটার মাস্টার মোস্তাফিজুর রহমানকেও বিশ্রামের রাখা হয়েছে। তাই আফগানদের বিপক্ষে ৩টি পরিবর্তন নিয়ে আজ মাঠে নমাবে বাংলাদেশ।

মুশফিকের যায়গায় একাদশে ঢুকেছেন মোমিনুল হক। আর আজকের ম্যাচ দিয়ে ওয়ানডেতে অভিষেক হচ্ছে পেসার আবু হায়দার রনির। আফগানিস্তানের বিপক্ষে বাংলাদেশের একাদশে থাকছেন এই ৩ তরুণ ক্রিকেটার। তাই আজকের ম্যাচে তরুণদের উপর ভরসা করছেন অধিনায়ক মাশরাফি।

মাশরাফি বলেন ‘তরুণদের কাছ থেকে তাদের স্বাভাবিক খেলাটাই চাই। তাদের ওপর বাড়তি চাপ দিতে চাই না। যদিও চাপ নিয়ে খেলার অভিজ্ঞতা তাদের আছে। আমার বিশ্বাস, তারা যদি খেলাটা উপভোগ করতে পারে, তবে এটা তাদের ভালো করার জন্য বড় সুযোগ।’

তার মতে তরুণরা যদি নিজেদের সেরাটা দিতে পারে তবে তামিমের অনুপস্থিতি দলের ওপর প্রভাব ফেলবে না।

তিনি বলেন ‘তরুণরা চেষ্টা করবে। কিন্তু অবশ্যই তাদের কাছ থেকে তামিমের মতো পারফর্ম প্রত্যাশা করছি না। কিন্তু যদি তারা তাদের সেরাটা দিতে পারে, তা হলের তামিমের মতো এফোর্ট দিতে পারবে। আমি তাদের কাছ থেকে শুধু একটি ভালো শুরু আশা করি।’

নতুন সূচিতে হতাশ মাশরাফি

ওয়ানডেতে ২৫০ উইকেটের মাইলফলক স্পর্শ করার অপেক্ষায় বাংলাদেশ অধিনায়ক মাশরাফি মুর্তজা। আর তিন উইকেট চাই সেজন্য। আবুধাবিতে এশিয়া কাপের গ্রুপপর্বের শেষ ম্যাচে আজ আফগানিস্তানের বিপক্ষে মাঠে নামবে বাংলাদেশ। ক্যারিয়ারের প্রতিটি আন্তর্জাতিক ম্যাচকে সমান গুরুত্বপূর্ণ মনে করেন বাংলাদেশ অধিনায়ক। বিশেষ মাইলফলকের হাতছানিতেও আলাদা অনুভূতি হচ্ছে না মাশরাফির।

বুধবার দুবাইয়ে সংবাদ মাধ্যমকে মাশরাফি বলেন, ‘এর আগেও ১০০, ২০০ উইকেটের সময় তেমন কিছু মনে হয়নি। সাধারণ খেলা খেলেছি। এবারও তেমন বাড়তি কিছু থাকবে না। আমার কাছে দেশের হয়ে খেলতে নামা প্রতিটি ম্যাচই সমান গুরুত্বপূর্ণ। সবসময়ই সর্বোচ্চ অবদান রাখার চেষ্টা করি। যে কোনো ম্যাচে অবদান রাখতে পারলেই ভালো লাগা কাজ করে।’

গত জুনে ভারতের দেরাদুনে তিন ম্যাচের টি ২০ সিরিজে আফগানিস্তানের বিপক্ষে হোয়াইটওয়াশ হয়েছিল বাংলাদেশ। আফগানিস্তানকে কঠিন প্রতিপক্ষ হিসেবে ধরা হলেও তাদের নিয়ে আলাদাভাবে ভাবছেন না মাশরাফি।

তিনি বলেন, ‘সবাই জয়ের লক্ষ্যেই খেলতে নামে। আমরাও তাই নামব। তবে প্রত্যেক ম্যাচের আগেই প্রতিপক্ষকে কঠিন হিসেবে ধরা হয়। এরআগে যখন শ্রীলংকার সঙ্গে খেলা হল, তখনো এমন একটা কথা শোনা গেল। সবাই জিততেই মাঠে নামে।’

তিনি বলেন, ‘আফগানিস্তানের বিপক্ষে ম্যাচটিও আন্তর্জাতিক। সুতরাং এই ম্যাচটিরও গুরুত্ব রয়েছে। তবে পরের ম্যাচগুলোর কথা চিন্তা করে কাকে বিশ্রাম দেয়া যায় আমরা তা ভাবছি। এখনো সব ঠিক হয়নি।’

তামিমের জায়গায় কে খেলবেন? মাশরাফি বলেন, ‘দলে তেমন কোনো পরিবর্তন আসবে না। যারা নিচের দিকে খেলছে তারা নিচের দিকেই খেলবে। তবে নতুনদের নিজেদের প্রমাণ করার সুযোগ রয়েছে, ভালো করার সুযোগ রয়েছে।’

এদিকে হঠাৎ করেই এশিয়া কাপের মাঝপথে সূচিতে পরিবর্তন এসেছে। সবার ধারণা, ভারতকে সুবিধা দিতেই এশিয়ান ক্রিকেট কাউন্সিল (এসিসি) এমনটা করেছে। তাদের ম্যাচগুলো সব রাখা হয়েছে দুবাইয়ে। আগের সূচিতে গ্রুপ-এ এবং গ্রুপ-বি’র চ্যাম্পিয়ন ও রানার্সআপের মাধ্যমে যে সূচি ঠিক করা ছিল সেটা এখন মানা হচ্ছে না।

নতুন সূচিতে গ্রুপ চ্যাম্পিয়ন-রানার্সআপ নির্ধারিত হওয়ার আগেই বাংলাদেশকে বি-২ এবং আফগানিস্তানকে বি-১ দল হিসেবে ধরা হয়েছে। একইভাবে অন্য গ্রুপে ভারত এ-১ ও পাকিস্তান এ-২। এতে খেপেছেন মাশরাফিও।