বন্ধুদের সঙ্গে বাজি ধরে পদ্মায় ডুবে গেল শাকিল

0
178

পাবনার ঈশ্বরদীতে বন্ধুদের সঙ্গে বাজি ধরে পদ্মা নদী সাঁতরে পার হতে গিয়ে শাকিল হোসেন (১৬) নামে এক ছাত্র মারা গেছে। এ ঘটনার পর প্রায় পাঁচ ঘণ্টা চেষ্টা চালিয়ে রাত ৮টার দিকে তার লাশ উদ্ধার করা হয়েছে।

খবরটি নিশ্চিত করেছেন উপজেলার সাঁড়া ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান রানা সরদার। মঙ্গলবার বিকেল পৌনে তিনটার সময় উপজেলার সাঁড়া ইউনিয়নের সাড়া ঝাউদিয়া ঘাটে এ দুর্ঘটনা ঘটে।

শাকিল ঈশ্বরদী পৌর এলাকার ৩নং ওয়ার্ডের সাড়া গোপালপুর মৌলভীপাড়া গ্রামের দিনমজুর রিয়াজুল ইসলামের ছেলে। সাঁড়া গোপালপুর উচ্চ বিদ্যালয় হতে ২০১৮ সালের এসএসসি পরীক্ষায় মানবিক বিভাগ থেকে অংশগ্রহণ করে সম্প্রতি পাস করেছে।

সাড়া ঝাউদিয়া গ্রামের ফিরোজ হোসেন জানান, পদ্মা নদীতে ৪ বন্ধু মিলে মঙ্গলবার দুপুরে গোসল করতে যায় শাকিল। নদীতে পানি কম থাকায় চর জেগে উঠার কারণে বন্ধুদের সঙ্গে সাঁতরে নদী পার হবার বাজি ধরে সে। বাকি ৪ বন্ধু সাঁতরে পার হলেও শাকিল পদ্মা নদীর পানিতে তলিয়ে যায়। পরে খবর পেয়ে ঈশ্বরদী ফায়ার সার্ভিসের উদ্ধার কর্মী ও স্থানীয় ডুবুরিরা অনেক খোঁজাখুঁজি করেও লাশ উদ্ধার করতে ব্যর্থ হয়ে রাজশাহী থেকে ডুবুরি আনা হয়।

ঈশ্বরদী ফায়ার সার্ভিসের ফায়ারম্যান শফিউর রহমান জানান, ঈশ্বরদী ও পাবনাতে ডুবুরি এক্সপার্ট কেউ না থাকায় দীর্ঘ পাঁচ ঘণ্টা পর রাজশাহী থেকে আগত ডুবুরিরা লাশ উদ্ধার করে।

ইউপি চেয়ারম্যান রানা সরদার শাকিলের মরদেহ তার আত্মীয়-স্বজনের হাতে তুলে দেন। এ ঘটনায় এলাকার স্বজন ও সহপাঠীদের মধ্যে শোকাহত পরিবেশের সৃষ্টি হয়েছে।

সূত্র: জাগোনিউজ২৪