খুশকির সমস্যায় নাজেহাল, জেনে নিন ঘরোয়া সমাধান

0
245

খুশকি আমাদের মাথার ত্বকের অন্যতম একটি সমস্যা। চিকিৎসাবিজ্ঞানের ভাষায় একে সেবোরিক ডার্মাটাইটিস বলা হয়। শরীরের সোবিয়াম গ্রন্থির প্রদাহের ফলে সাধারণত খুশকি হয়।আর খুশকির সমস্যা নারী-পুরুষে ভেদ নেই। খুশকি নিয়ে কিশোর-কিশোরী, তরুণ-তরুণী কিংবা যুবক-যুবতী—সবাইকে দেখা যায় উশখুশ করতে। কিন্তু নানা প্রাকৃতিক উপাদান ব্যবহার করে ঘরে বসেই বেয়ারা খুশকির লাগাম টেনে ধরতে পারেন আপনি।

চলুন তবে জেনে নিই উপায়গুলো…

১. টকদই

খুশকির সমস্যা থেকে বাঁচতে টকদই অত্যন্ত কার্যকরী একটি উপাদান। খুশকি দূর করতে মাথার ত্বকে টকদই দিয়ে ভালোভাবে মালিশ করে মিনিট দশেক রেখে ভালো করে ধুয়ে ফেলুন। খুশকির সমস্যা পুরোপুরি দূর না হওয়া পর্যন্ত সপ্তাহে অন্তত দু’বার এভাবে চুলে টকদই ব্যবহার করে দেখুন। উপকার পাবেন।

২. মেথি

২-৩ চামচ মেথি সারারাত পানিতে ভিজিয়ে রেখে সকালে ছেঁকে নিয়ে ভালো করে বেটে নিন। ছেঁকে নেওয়া পানি ফেলে দেবেন না। এবার মেথি বাটা চুলের গোঁড়ায় ভালো করে লাগিয়ে ঘণ্টা খানেক রেখে দিন। শুকিয়ে গেলে চুল ধুয়ে মেথি ভেজানো পানি দিয়ে আরও একবার ধুয়ে নিন। এভাবে সপ্তাহে দু’বার মেথি ব্যবহার করলে খুশকির সমস্যা দ্রুত দূর হবে।

৩. লেবুর রস

সামান্য পানির সঙ্গে ২ চামচ পাতি লেবুর রস মিশিয়ে মাথার ত্বকে ভালোভাবে মালিশ করুন। মিনিট পাঁচেক চুলের গোড়ায় ভালোভাবে মালিশ করার পর চুল ধুয়ে নিন। খুশকির সমস্যা পুরোপুরি দূর না হওয়া পর্যন্ত সপ্তাহে অন্তত ২ বার একইভাবে পাতি লেবু ব্যবহার করে দেখুন। ফল পাবেন হাতেনাতে।

৪. রিঠা

চুলের সৌন্দর্য বাড়াতে রিঠা অত্যন্ত কার্যকরী একটি উপাদান। খুশকির সমস্যা দূর করতেও এটি অত্যন্ত কার্যকর। রিঠা পাউডার বা রিঠা সিদ্ধ পানিতে চুল ভিজিয়ে ঘণ্টাখানেক রেখে দিন। চুলের গোড়ায় গোড়ায় রিঠার পানি ভালোমতো লাগলে তবেই ফল পাওয়া যাবে। ঘণ্টাখানেক পর চুল ধুয়ে ফেলুন। এ ভাবে সপ্তাহে ২-৩ বার রিঠা ভেজানো জল মাথায় মাখলে খুশকির সমস্যা দ্রুত নিয়ন্ত্রণে চলে আসবে।

৫. নারকেল তেল

নারকেল তেল চুলের যে কোনো সমস্যা সমাধানের ক্ষেত্রে একটি অপরিহার্য উপাদান। খুশকির প্রকোপ কমাতেও এটা অত্যন্ত কার্যকর। এ ছাড়া চুলে গোড়ার আদ্রতা বজায় রেখে খুশকি এবং ‘স্কাল্প ইনফেকশন’-এর আশঙ্কাও অনেকটাই কমিয়ে দেয়।

৬. পেঁয়াজের রস

দুইটা পেঁয়াজ ভালো করে বেটে এক মগ পানিতে মিশিয়ে নিন। এবার পেঁয়াজের রস মেশানো ওই পানি মাথায় লাগিয়ে ভালো করে মালিশ করুন। কিছুক্ষণ পর উষ্ণ পানি দিয়ে ধুয়ে ফেলুন। এভাবে সপ্তাহে অন্তত ২-৩ বার পেঁয়াজের রস মাথার ত্বকে মাখলে খুশকির সমস্যায় দ্রুত উপকার পাবেন।